[X]

হার্ট অ্যাটাক হলে তাৎক্ষণিক ভাবে করনীয় গুলো কি কি?


১. কারও হার্ট অ্যাটাক হলে প্রথমেই জরুরি ভিত্তিতে ডাক্তার ডেকে আনতে হবে। কারণ অভিজ্ঞ ডাক্তার ছাড়াই কোন ও ট্রিটমেন্ট করতে গেলে অনেক সময় রোগীর অবস্থা আরও খারাপ হয়ে পড়তে পারে।

২. হার্ট অ্যাটাকের পর পরই রোগীকে শক্ত জায়গায় হাত-পা ছড়িয়ে শুইয়ে দিন এবং গায়ের জামা-কাপড় ঢিলে ঢালা করে দিন। আর সম্ভব হলে জামা-কাপড় খুলে ফেলুন।

৩. বাতাস চলা চলের রাস্তা গুলো সব উম্মুক্ত করে দিন। এরপর রোগীকে গভীর ভাবে শ্বাস-প্রশ্বাস নিতে সহায়তা করুন।

৪. হার্ট অ্যাটাকের পর হাতের কব্জিতে পালস টেস্ট না করে বরং ঘাড়ের কোনও একপাশে পালস টেস্ট করুন। কারণ নিম্ন রক্ত চাপের কারণে হার্ট অ্যাটাকের পর হাতের কব্জিতে পালস নাও ধরা পড়তে পারে।

৫. হার্ট অ্যাটাকের পর যদি রোগীর শ্বাস-প্রশ্বাস বন্ধ হয়ে যায় তাহলে তাকে কৃত্রিম উপায়ে অক্সিজেন সরবরাহের চেষ্টা করুন।

৬. হার্ট অ্যাটাকের পর রোগীর যদি বমি আসে তাহলে তাকে একদিকে কাত করে দিন। যাতে সে সহজেই বমি করতে পারে। এতে ফুসফুসের মতো অঙ্গে বমি ঢুকে পড়া থেকে রক্ষা পাবেন রোগী।

৭. হৃদপিন্ডে রক্তের সরবরাহ বাড়াতে হার্ট অ্যাটাকে আক্রান্ত ব্যক্তির দুটো পা-ই উপরের দিকে তুলে ধরুন।

৮. হার্ট অ্যাটাকের পর হৃদপিন্ডে রক্তের সরবরাহ বাড়ানোর জন্য বাজারে প্রচলিত ওষুধ ও রোগীকে তাৎক্ষণিক ভাবে খাইয়ে দিতে পারেন।

৯. হার্ট অ্যাটাকে রোগী যদি অচেতন হয়ে পড়েন তাহলে সিপিআর থেরাপি প্রয়োগ করুন। সম্প্রতি আমেরিকান হার্ট অ্যাসোসিয়েশন হ্যান্ডস অনলি সিপিআর নামে এই থেরাপির একটি সরলীকৃত ভার্সন ভিডিও আকারে বাজারে ছেড়েছে।

ফেসবুকের নিয়ম অনুযায়ী লাইক না দিলে পরবর্তী পোস্ট আপনার টাইমলাইন এ আসবে না। তাই আমাদের পেজ এর সব পোস্ট এ লাইক, কমেন্ট ও শেয়ার দিয়ে আমাদের পাশে থাকুন, তাহলেই আমরা আরো ভাল পোস্ট নিয়ে হাজির হব৷

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

অফিস ॥ ৯২ আরামবাগ, ক্লাব মার্কেট, মতিঝিল। ই-মেইল ॥ banglaonlinetv24@gmail.com
প্রকাশক মোঃ রাসেল জাতীয় মানবাধিকার ইউনিটি রেজিঃ নং: ঢ_০৮৮৩৭
অনলাইন নিতীমালা মেনে আবেদন কৃত সম্পাদক॥ রাজু আহমেদ অনুমোদিত নাম্বার ০৫/৯৩১৭০২৬৫