ভক্তিবিশ্বাস কেন গুরুত্বপুর্ণঃ


মানবের মন অস্থির চঞ্চলমতি। নানা বিষয়বাসনা মনের মধ্যে ঘুর পাক খেতে থাকে। বারবার হাত ছানি দিয়ে ডাকতে থাকে মোহমায়ার জালে ধরা দেবার জন্য। তাই এই মনের মধ্যে জমে থাকা জঞ্জালগুলো বার বার ফিরে ফিরে অাসে। মনের কেন্দ্রবিন্দুকে ঢেকে রাখতে চাইছে ঐ জঞ্জালগুলো ।

কিন্তু সুর্যকে চাইলেই কি মেঘ ঢেকে রাখতে পারে? না...পারে না। একটা সময় অন্ধকার মনে হলেও আড়ালে তার সুর্য ঠিকই হাসতে থাকে যা আমরা দেখি না। মেঘ কেটে গেলেই দেখা যায় প্রদীপ্তমান তেজোদীপ্ত একটা জ্ব্যাজ্বল্যমান সুর্য।

ঠিক তেমনি মনের কেন্দ্রবিন্দুতে অবস্থান নেয়া সত্ত্বাটিকে বিষয়াসয় নামক জঞ্জালগুলো যতোই ঘিরে ফেলুক না কেন, সেই সত্ত্বাটি ঠিকই তার প্রদীপ্ত আলোক রশ্মি বিকিরণ করে জঞ্জালগুলোকে পরিস্কার করে দেয়....শুধু দরকার বিশ্বাস এবং ভক্তিশ্রদ্ধা....

বিশ্বাসের প্রদীপ্ত আলোক রশ্মি  ভক্তিশ্রদ্ধার দ্বারা শক্তিমান হয়েই কেবল মানবীয় সত্ত্বাটি জাগ্রত হয় অবিশ্বাসের জঞ্জাল থেকে। তাই দেখা যায় - যারা সাধারণ মানব থেকে ক্রমান্বয়ে মহামানবের দিকে অগ্রসর হয়েছেন, তারা ঠিক এই বিশ্বাসের প্রদীপ্ত আলোক রশ্মি কেই আলোকিত করেছেন ভক্তি বিশ্বাসের দ্বারা।

সুতরাং ভক্তি বিশ্বাসই হচ্ছে সকল অন্তরায় থেকে মুক্তির একমাত্র মহা ঔষধ। এই ঔষধ সেবনেই কেবল মুক্তির দ্বার উন্মোচিত হয়।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

অফিস ॥ ৯২ আরামবাগ, ক্লাব মার্কেট, মতিঝিল। ই-মেইল ॥ banglaonlinetv24@gmail.com
প্রকাশক মোঃ রাসেল জাতীয় মানবাধিকার ইউনিটি রেজিঃ নং: ঢ_০৮৮৩৭
অনলাইন নিতীমালা মেনে আবেদন কৃত সম্পাদক॥ রাজু আহমেদ অনুমোদিত নাম্বার ০৫/৯৩১৭০২৬৫