অর্ধনগ্ন শরীরে পাকিস্তানি পতাকা এঁকে গ্রেফতারের মুখে আরশি

মুম্বই: বিগ বসের প্রতিযোগী আরশি খানকে নিয়ে প্রথম থেকেই বিতর্ক। বিগ বসে আসার আগেও বহুবার শিরোনামে এসেছেন তিনি। ক্যামেরার সামনে নগ্নও হতে দেখা গিয়েছিল তাঁকে। তবে, এবার সলমন খানের বিগ বসের ঘর থেকে গ্রেফতার করা হতে পারে আরশি খানকে। না, শুধুমাত্র বিগ বসের ঘরেই নয়, তাঁকে ঘিরে বিতর্ক তৈরি হয়েছে বাইরেও। শরীরে পাকিস্তানি পতাকা আঁকার জন্য তাঁকে গ্রেফতারের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ২০১৬-য় এই বিতর্কিত ছবিতে দেখা গিয়েছিল তাঁকে। অর্ধনগ্ন শরীরের বিভিন্ন জায়গায় পাকিস্তানের পতাকা এঁকে ছবি তুলেছিলেন আরশি। বিকিনি পরা অবস্থায় ওই ছবি তোলেন তিনি। খোলা পিঠ ও বুকেও আঁকা ছিল পতাকা। সেইরকম কিছু ছবিই সম্প্রতি ফের প্রকাশ্যে এসেছে। আর তাতেই তৈরি হয়েছে বিতর্ক। ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস টাইমস’-এ প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, জলন্ধরের ম্যাজিস্ট্রেট কোর্ট পুলিশকে নির্দেশ দিয়েছে, যারে বিগ বসের ঘরে ঢুকে আরশি খানকে গ্রেফতার করা হয়। জানা গিয়েছে, এই ইস্যু নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরেই মামলা চলছিল। তবে এই নিয়ে তৃতীয়বার আরশি খান শুনানিতে হাজিরা দেননি। আর তাঁর বিরুদ্ধে এই নিয়ে দ্বিতীয়বার গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হল। এই ঘটনার পরই শোনা যাচ্ছে, বিগ বসের ঘরে ঢুকে তাঁকে গ্রেফতার করা হতে পারে। তবে আরশি খানের পাবলিসিস্ট ফ্লিন রেমেডিওস জানিয়েছেন, ১৫ জানুয়ারি অর্থাৎ বিগ বসের ‘ফিনালে’ পর্যন্ত স্থগিতাদেশ দেওয়া হয়েছে। একসময়, প্রাক্তন পাক অধিনায়ক শাহিদ আফ্রিদির ছবি বক্ষ যুগলে পেন্ট করে নজরে এসেছিলেন আরশি। এমনকী দাবি করেছিলেন, আফ্রিদির সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কেও লিপ্ত হয়েছেন তিনি। যা নিয়ে ছড়িয়েছিল তীব্র বিতর্ক। পাকিস্তানের এক মাদ্রাসা আরশির বিরুদ্ধে ফতোয়াও জারি করেছিল। এখানেই শেষ নয়। লাইমলাইটে আসতে পরের বছর তিনি জানান, আফ্রিদির সন্তানের মা হতে চলেছেন তিনি। আরশি নাকি তিনমাসের গর্ভবতী এবং তাঁদের সম্পর্ককে আফ্রিদি নাকি মেনেও নিয়েছেন। পরে জানা যায়, তিনি সত্যিই অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন। তবে সন্তানটি কার তা স্পষ্ট হয়নি। যদিও পরে গর্ভবতী হওয়ার কথা নিজেই অস্বীকার করেন ওই মডেল।

No comments:

Post a Comment

অফিস ॥ ৯২ আরামবাগ, ক্লাব মার্কেট, মতিঝিল। ই-মেইল ॥ banglaonlinetv24@gmail.com
প্রকাশক মোঃ রাসেল জাতীয় মানবাধিকার ইউনিটি রেজিঃ নং: ঢ_০৮৮৩৭
অনলাইন নিতীমালা মেনে আবেদন কৃত সম্পাদক॥ রাজু আহমেদ অনুমোদিত নাম্বার ০৫/৯৩১৭০২৬৫