অ্যাপসটি সবাই কেন ব্যবহার করতে চায়। কারণ হচ্ছে এতে রয়েছে সকল ধরনের সবিতা। জিটিভি লাইভ খেলা, রেডিও ,টিভি, নিউজ পেপার ,পুলিশের নাম্বার ,লাইভ ক্রিকেট খেলার ,cricket scores ,football scores , অডিও কোরআন শরীফ শুনতে ও পড়তে পারবেন , আরো রয়েছে আপনার সন্তানের পরীক্ষার রেজাল্ট বাহির করতে পারবেন ,ইত্যাদি সকল বিষয়। এবং আরো রয়েছে অনেক ধরনের সুবিধা যেমন আপনি যেখানে ১২ থেকে ১৫ টা সফটওয়্যার ইনস্টল করতে হবে । সেখানে আপনি মাত্র চার এমবি একটা সফটওয়্যার ইন্সটল করে সব কাজ করতে পারেন। কোন জামেলা ছাড়াই । এবং ফ্রিতে ইন্সটল করতে পারেন কোন play store সমস্যা পড়তে হবে না । ডাউনলোড লিংক দেওয়া হল ভালো লাগলে ডাউনলোড করে ব্যবহার করবেন ধন্যবাদ সবাইকে

তখনই তাদের রিলেশন হয়,দুইবছর যাবত সম্পর্ক খুব গভীরহয়ে ওঠে,

মেয়েটি অষ্টম শ্রেনীতে পড়তো, আর ছেলেটি দশম শ্রেনীতে পড়তো তখনই তাদের রিলেশন হয়, দুইবছর যাবত সম্পর্ক খুব গভীর হয়ে ওঠে, এর পর মেয়েটি যখন দশম শ্রেনীতে উর্ত্তীর্ন হয় তখন মেয়েটির মা-বাবা মেয়েটিকে বিয়ে দেওয়ার সিদ্বান্ত নেয়, কথাটি মেয়েটি ছেলেটিকে বলে এখন কি করবা করো, আমি তোমাকে ছাড়া বাঁচবো না, ছেলেটি ও মেয়েটিকে সত্যিই ভালোবাসতো, ছেলেটি কি করবে.? ছেলেটির বড় ভাই একটা আছে সে ও বিয়ে করে নাই, এখন ছেলেটি বিয়ে করার প্রস্তাব দিবে ক্যাম্নে..? মা-বাবা কে বলবে ক্যাম্নে, চরম টেনশনে পড়ে গেলো, ' ছেলেটি নিজের মান-সম্মানের দিকে না তাকিয়ে মা-বাবা কে কান্না করে, আকুতি-মিনতি করে বল্লো মেয়েটি ও আমাকে ভালোবাসে, আমি ও তাকে ভালোবাসি, যদি আপনারা মেনে না নেন আমাদের দুটি প্রান অকালে ঝরে যাবে, আমরা আত্মহত্যা করবো, এমন অবস্থা দেখে ছেলেটির বাবা মা রাজি হলো, ছেলেটির বাবা-মা ও এলাকার মেম্বার কে নিয়ে বিয়ের প্রস্তাব নিয়ে মেয়েদের বাড়িতে যায়, মেয়েটির বাবা কোন ভাবেই রাজি নই, পরবর্তী তে থ্রেড দেয় দ্বিতীবার বিয়ের কথা বল্লে আমি মামলা করতে বাধ্য হবো, সবার সামনে অপমান করে ছেলেটির বাবা মা কে, কয়েকদিন পর মেয়েটিকে সৌদিআরব প্রবাসী একটা ছেলের কাছে বিয়ে দিয়ে দেয়, সুন্দরভাবে চলছে মেয়েটির সংসার, মেয়েটির স্বামীর বিয়ের ৩মাস পর ছুটি শেষ, আবার সৌদিআরব চলে যায়, যখন স্বামী বিদেশ যাচ্ছে তখন মেয়েটির পেটে ২মাস ১৫দিন দিনের সন্তানের গর্ভবতী মেয়েটি, স্বামী সৌদিআরব যাওয়ার ১৫দিন পর ওখানে স্বামী মারা যায়,, একটি সড়ক দুর্ঘটনায়, এ কি আর্তনাদ মেয়েটির, একি হাহাকার, স্বামীর মৃত্যুর ৪৫দিন পর আগের সেই প্রিয়জনের সাথে দেখা হলো, মেয়েটি কাঁদতে কাঁদতে ছেলেটিকে কথাটি বল্লো, ছেলেটি ও কাঁদতে লাগলো কথা গুলো শুনে, মেয়েটি ছেলেটিকে বল্লো তুমি কি এখন ও আমায় মেনে নিবে আমায়.? আমি ৫মাসের গর্ভবতী, ' ছেলেটি কিছুক্ষণ চুপ করে উত্তর দিলো তুমি ১টা সন্তান কেন ১০টা সন্তানের মা হলেও আমি তোমাকে মেনে নিবো, আমি তোমাকেই ভালোবাসি... ' একেই বলে ভালোবাসা একেই বলে কাছে আসা, ধৈর্য সহকারে পুরোটা পড়ার জন্য ধন্যবাদ, গল্পটি কেমন লাগলো অবশ্যই জানাবেন, "গল্পটা কেমন হলো জানাবেন কিন্তু।. Thanks for your loss time. বন্ধুরা মোবাইল দিয়ে এই পোষ্ট গুলো করি বুঝতেই তো পারেন কতটা সময় নষ্ট হয় পোষ্টটা কেমন লাগলো একটু জানিয়ে জাবেন পোস্ট ভালো লাগলে ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট পাঠাতে পারেন।

No comments:

Post a Comment

অফিস ॥ ৯২ আরামবাগ, ক্লাব মার্কেট, মতিঝিল। ই-মেইল ॥ banglaonlinetv24@gmail.com
প্রকাশক মোঃ রাসেল জাতীয় মানবাধিকার ইউনিটি রেজিঃ নং: ঢ_০৮৮৩৭
অনলাইন নিতীমালা মেনে আবেদন কৃত সম্পাদক॥ রাজু আহমেদ অনুমোদিত নাম্বার ০৫/৯৩১৭০২৬৫