অ্যাপসটি সবাই কেন ব্যবহার করতে চায়। কারণ হচ্ছে এতে রয়েছে সকল ধরনের সবিতা। জিটিভি লাইভ খেলা, রেডিও ,টিভি, নিউজ পেপার ,পুলিশের নাম্বার ,লাইভ ক্রিকেট খেলার ,cricket scores ,football scores , অডিও কোরআন শরীফ শুনতে ও পড়তে পারবেন , আরো রয়েছে আপনার সন্তানের পরীক্ষার রেজাল্ট বাহির করতে পারবেন ,ইত্যাদি সকল বিষয়। এবং আরো রয়েছে অনেক ধরনের সুবিধা যেমন আপনি যেখানে ১২ থেকে ১৫ টা সফটওয়্যার ইনস্টল করতে হবে । সেখানে আপনি মাত্র চার এমবি একটা সফটওয়্যার ইন্সটল করে সব কাজ করতে পারেন। কোন জামেলা ছাড়াই । এবং ফ্রিতে ইন্সটল করতে পারেন কোন play store সমস্যা পড়তে হবে না । ডাউনলোড লিংক দেওয়া হল ভালো লাগলে ডাউনলোড করে ব্যবহার করবেন ধন্যবাদ সবাইকে

বেনাপোলে হুন্ডির এক লক্ষ ডলারকে কেন্দ্র করে পাঁচারকারির রহস্যজনক আত্মহত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক : বেনাপোলে হুন্ডির এক লক্ষ ডলার(প্রায় দুই কোটি টাকা) আত্মসাতকে কেন্দ্র করে জামাল হোসেন(৩৫) নামে এক যুবক বিষ পান করে আত্মহত্যা করেছে। সে সাদিপুর গ্রামের মোজাম্মেল হোসেনের ছেলে। শুক্রবার বিকেল ৩টার দিকে সে গ্যাস ট্যাবলেট ও বিষপান করে আত্মহত্যা করে বলে জানাযায়। পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে বেনাপোল পোর্ট থানায় নিয়ে আসে।

এ বিষয়ে জামালের স্ত্রী রেহেনা খাতুন বলেন, আমার স্বামী গ্রামের কয়েকজনের সাথে গোল্ড ও ডলার পাঁচারের কাজ করত। সর্বশেষ গত শুক্রবার একটি চালানের টাকা ভারত থেকে উঠলে জামালের মহাজনরা ভাগবাটোয়ারা করে নিয়ে নেয়। পরে ঢাকার মূল মহাজন জামাল ও একই গ্রামের মোক্তারকে উঠিয়ে পর্যটন মোটেলে নিয়ে যায়। এসময় পোর্ট থানার দুই দারোগা উপস্থিত ছিল। তারমধ্যে এক দারোগা জামালকে বলে তুই টাকা আত্মসাৎ করিছিস। বলেই বুকের পরে লাথিসহ কিল থাপ্পড় মেরে শর্ত দিয়ে ছেড়ে দেয়। পরের দিন আবার একটি কালো রংয়ের প্রাইভেটকার এসে জামাল আর মোক্তারকে তুলে ঢাকায় নিয়ে যায়। সেখানে মোক্তারকে ছেড়ে দিয়ে জামালকে সিগারেটের আগুনে সমস্ত শরীর পুড়িয়ে ক্ষত-বিক্ষত করাসহ ছুরি দিয়ে পেটের দুই পাশে ফেড়ে দেয়। ৪দিন পর মোক্তার তাকে জিম্মায় নিয়ে আসে। বলে মোক্তার দেবে ১০ লাখ আর জামাল দেবে ৩০ লাখ। অবশেষে গত বৃহস্পতিবার বাড়িতে আসার পরে গ্রামের অন্যান্য এঘটনার সাথে জড়িত বল্টুর ছেলে মোক্তার হোসেন, তরিকুল ইসলাম, আহসানের ছেলে সুজন, একই এলাকার সেলিনা খাতুন ও মোক্তারের বোনাই বড় আঁচড়া গ্রামের মোহন তাদেরকে নাম না বলার জন্য হুমকি দেয় এবং মেরে ফেলার কথা বলে। যা সহ্য করতে না পেরে শুক্রবার বিকেলে সে গ্যাস ট্যাবলেট আর বিষ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। পরে বেনাপোল বাজারে ডাক্তারের কাছে নেওয়ার সময় কথা বলতে পারলেও ওয়াস করার পরে মারা যায়।

এসময় তিনি কান্না জড়িত কন্ঠে আরো বলেন, আপনারা সাংবাদিক। আপনাদের কাছে সব কথা বলে দিলাম। ওরা জানতে পারলে আমাকেও মেরে ফেলবে।

এ সময় জামালের মেয়ে বলেন, আমার আব্বা মোক্তারের জন দিতো। ওরা টাকা আত্মসাৎ করে আমার আব্বাকে ফাসিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে। বলে, তাদের নাম বললে আমার আব্বাকে ওরা মেরে ফেলবে।  

এ বিষয়ে বেনাপোল পোর্ট থানার অফিসার ইনচার্য(ওসি) অপূর্ব হাসান বলেন, জামালের মৃত্যুর খবর শুনে ঘটনাস্থলে গিয়েছিলাম। বিস্তারিত জেনেছি। ইতিমধ্যে ১লক্ষ ডলারের একটি চালান বাংলাদেশে ঢোকে। যার রিসিভ করে জামাল। পরে উক্ত ডলারটি জামালের মার কাছে জমা রাখে। যা এদিন চাইতে গেলে জামালের মা বলে আমার ছেলে তিনটি। তোর মতো একটি ছেলে মরে গেলেও আমার কোন শোকতাপ লাগবে না। যে কারণে জামাল আত্মহত্যার পথ বেছে নেয়। এছাড়া উক্ত ডলারটি জামালের মায়ের কাছেই আছে বলে দাবি করেন তিনি। বলেন, ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য যশোরে পাঠানো হয়েছে।

জানাযায়, ইতিপূর্বে সাদিপুর সিমান্ত থেকে ৭২ লাখ টাকার হুন্ডিসহ মোস্তাক হোসেন ওরফে মোস্তান নামের এক যুবক বিজিবির হাতে আটক হয়। যার তথ্যদাতা ছিলো জামাল হোসেনসহ একই গ্রামের মোক্তার হোসেন, সুজন, সেলিনা খাতুন, তরিকুল ইসলাম ও বড় আঁচড়া গ্রামের মোহন। পরে বিজিবির কাছ থেকে মোটা অংকের সোর্স মানি পায়। এরপরে উক্ত মার খাওয়া পার্টির সাথে যোগাযোগ করে এপাশ থেকে স্বর্ণের বার আর ভারত থেকে ডলার বাংলাদেশে নিয়ে তাদের কাছে পৌছে দেওয়ার দ্বায়িত্ব নেয় এই গং। বিনিময়ে মোক্তার হোসেন সপ্তাহে এক লক্ষ, জামাল হোসেন সপ্তাহে ৫০ হাজার আর অন্যান্যরা সপ্তাহে ১০ হাজার করে টাকা পান মূল হোতার কাছ থেকে। অবশেষে গত শুক্রবার দিবালোকে গোল্ডের একটি চালানের ফেরত ডলার ভারত থেকে বাংলাদেশে আসে। তার রিসিভ করে জামাল হোসেন। পরে ডলারের অঙ্ক বেশী হওয়ায় আত্মসাৎ করে এ স্থানীয় চক্র গং। পরে নাটকীয়তার মাধ্যমে পার্টিকে বলে বিজিবির হাতে চালানটি আটক হয়েছে। যার খোজ খবর নিতে এই কয়েক দিনের মধ্যে বিজিবি সদস্যরা তাদেরকে তাড়িয়ে নিয়ে বেড়ায়। খোজ খবর নিতে থাকেন ডিবি সদস্যরাও। সেসাথে পোর্ট থানা পুলিশের দুই কর্মকর্তার নাম বেরিয়ে আসে।





No comments:

Post a Comment

অফিস ॥ ৯২ আরামবাগ, ক্লাব মার্কেট, মতিঝিল। ই-মেইল ॥ banglaonlinetv24@gmail.com
প্রকাশক মোঃ রাসেল জাতীয় মানবাধিকার ইউনিটি রেজিঃ নং: ঢ_০৮৮৩৭
অনলাইন নিতীমালা মেনে আবেদন কৃত সম্পাদক॥ রাজু আহমেদ অনুমোদিত নাম্বার ০৫/৯৩১৭০২৬৫