[X]

নামাজরত অবস্থায় রামগঞ্জে বিধবা মহিলাকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা


লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলা আথাকরা গ্রামের ঠাকুর বাড়ির বিধবা সালেহা বেগমকে গত রাত ৯টার সময় নিজ ঘরে এশার নামাজরত অবস্থায় দূর্বিত্তরা পিছন থেকে দারালো অস্ত্র দিয়ে মাথায় কুপিয়ে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া যায়।
সালেহা বেগমের পারিবারিক ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, ভোলাকোট ইউনিয়নের আথাকরা ঠাকুর বাড়ির মৃত জুনাব আলীর স্ত্রী সালেহা বেগম গত বৃহস্পতি বার রাত ৯টার সময় ঘরের পিছনের রুমের দরজা খোলা অবস্থায় এশার নামাজ পড়ছে। এ সময় তার পিছনের দিক থেকে হঠাৎ কে বা কারা দেশীয় অস্ত্র মাথায় দুই তিনটি কোপ দিয়ে পালিয়ে যায়। এ সময় সালেহা বেগম চিৎকার দিলে ঘরে সামনের রুমে থাকা তার ছেলের বৌ মরিয়ম সুলতানা পলি,বাড়ির জেছমিন বেগম,ঝর্না, ছায়েদ উল্লা, ছেফায়েত মিয়াসহ এলাকার বহু লোক এসে তাকে উদ্ধার করে আথাকরা বাজারের ডা. শাহাদাৎ হোসেন নিকট নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। বিধবার পুত্রবধু মরিয়ম সুলতানা জানান, তার শাশুড়ী প্রতিদিনের ন্যায় নিরবিলি পিছনের রুমে নামাজ পড়ে। এশার নামাজের সময তার চিৎকার শুনে গিয়ে রক্ত জরা অবস্থায় সে চিৎকার দিলে বাড়িসহ এলাকা লোকজন এসে ডাক্তারের কাছে নিয়ে। কে বা কারা ককুপিয়েছে তারা কাউকে দেখে নাই। তবে ২দিন আগে তার শাশুড়ীর সাথে কবরস্থানে সবজির মুড়া করাকে কেন্দ্র করে তার চাচী শাশুড়ীর সুরাইয়া আক্তারের ঝগড়া ও ২০/২৫ দিন আগে বিদ্যুতের খুটি বসানো কেন্দ্র করে বাড়ি কয়েকজন লোকের সাথে ঝড়গা হয়েছে। এ ছাড়া কারো সাথে তাদের কোন শত্রুতা বা ঝড়গা নেই।
বিধবার ছোট ভাই নুরনবী জানান, খবর শুনে সে তার বোনের বাড়িতে গিয়াছে। রামগঞ্জ সরকারী হাসপাতালে ভর্তি ও থানা ডায়েরী করার প্রস্তুতি চলছে।
রামগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ তোতা মিয়া জানান, এ ব্যাপারে কেউ থানায় অভিযোগ করেনি, অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

অফিস ॥ ৯২ আরামবাগ, ক্লাব মার্কেট, মতিঝিল। ই-মেইল ॥ banglaonlinetv24@gmail.com
প্রকাশক মোঃ রাসেল জাতীয় মানবাধিকার ইউনিটি রেজিঃ নং: ঢ_০৮৮৩৭
অনলাইন নিতীমালা মেনে আবেদন কৃত সম্পাদক॥ রাজু আহমেদ অনুমোদিত নাম্বার ০৫/৯৩১৭০২৬৫