অ্যাপসটি সবাই কেন ব্যবহার করতে চায়। কারণ হচ্ছে এতে রয়েছে সকল ধরনের সবিতা। জিটিভি লাইভ খেলা, রেডিও ,টিভি, নিউজ পেপার ,পুলিশের নাম্বার ,লাইভ ক্রিকেট খেলার ,cricket scores ,football scores , অডিও কোরআন শরীফ শুনতে ও পড়তে পারবেন , আরো রয়েছে আপনার সন্তানের পরীক্ষার রেজাল্ট বাহির করতে পারবেন ,ইত্যাদি সকল বিষয়। এবং আরো রয়েছে অনেক ধরনের সুবিধা যেমন আপনি যেখানে ১২ থেকে ১৫ টা সফটওয়্যার ইনস্টল করতে হবে । সেখানে আপনি মাত্র চার এমবি একটা সফটওয়্যার ইন্সটল করে সব কাজ করতে পারেন। কোন জামেলা ছাড়াই । এবং ফ্রিতে ইন্সটল করতে পারেন কোন play store সমস্যা পড়তে হবে না । ডাউনলোড লিংক দেওয়া হল ভালো লাগলে ডাউনলোড করে ব্যবহার করবেন ধন্যবাদ সবাইকে

আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে একটি পরিবারকে উচ্ছেদের চেষ্টা বসতঘরের সামনে বেঁড়া পরিবারের মানবেতর জীবন যাপন

রামগঞ্জে  আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে একটি পরিবারকে উচ্ছেদের চেষ্টা বসতঘরের সামনে বেঁড়া পরিবারের মানবেতর জীবন যাপন
রামগঞ্জ (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধিঃ
লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলার দরবেশপুর ইউনিয়নের পূর্বদরবেশপুর গ্রামের তালুকদার বাড়ির আবুল হোসেন মন্টু’র বসত ঘরের তিন পাশে গত ২ বছর যাবত একই বাড়ির সফিক উল্লাহ অত্র ইউনিয়নের প্রভাবশালী কিছু ব্যক্তিকে ম্যানেজ করে বাঁশের বেঁড়া রাখে ও  আদালতের নিষেধাজ্ঞাা অমান্য করে গত ১ মাস যাবত ভবন নির্মানের কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। এতে পরিবারটি দীর্ঘদিন যাবত মানবেতর জীবন যাপন করছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আবুল হোসেন মন্টু পৈত্রিক ও খরিদা সূত্রে মালিক হয়ে দীর্ঘদিন যাবত পরিবার পরিজন নিয়ে বসবাস করে আসছে। হঠাৎ ২০১৬ সালে একই বাড়ির তাঁর বোন ফাতেমা বেগমের ও ¯বামী সফিক উলাহ ওয়ারিশি সম্পত্তির মালিকানা দাবী করে মন্টু মিয়ার ভবন নির্মান  সামগ্রী ও দরজা সামনে মাটি কেটে, বাঁশের বেঁড়া দিয়ে রাখে। বাধা দিলে সফিক মিয়া ও তার ছেলেরা এলাকার কিছু লোকদের সহযোগিতায় তাদেরকে উচ্ছেদ হুমকী ধমকী ও মারধর করে। পরবর্তিতে ২৫/১২/২০১৬ইং সালে মন্টু মিয়া লক্ষ্মীপুর জেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ১৪৪/১৪৫ ধারায় মামলা করলে আদালতে উক্ত সম্পত্তির উপর অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা প্রদান করে। এতে ক্ষীপ্ত হয়ে সফিক মিয়া ২৩/৩/২০১৭ তারিখে মন্টু মিয়ার পরিবারের উপর হামলা করে, তখন মন্টু মিয়া বাদী হয়ে আদালতে ১০৭/১১৭ ধারায় মামলা করে। বর্তমানে ্ওই সম্পত্তির উপর একটি দেওয়ানী মামলা আদালতে বিচারাধিন রয়েছে। মামলা নং ৮৬১/১৬। মামলা বিচারাধিন ও উক্ত সম্পত্তিতে আদালতের নিষেধাজ্ঞা থাকা অবস্থা গত ১ মাস যাবত সফিক মিয়া ভাড়াটিয়া লোকজন নিয়ে ঘরের সামনে বাঁশের বেড়াঁ ও ঘর নির্মান করে, বর্তমানে ভবন নির্মানের জন্য ইট,বালু , রড সহ যাবতীয় মালামাল্ওই স্থানে রাখে।
আবুল হোসেন মন্টু জানান, আমি পৈত্রিক ও ক্রয় সূত্রে সম্পত্তির মালিক হয়ে দীর্ঘ ৩ যুগ ধরে বসবাস করে আসছি। হঠাৎ তিন বছর পূর্ব থেকে আমার বোন ও ভগ্নিপতি সম্পত্তির মালিক দাবী করিয়া আমাকে উচ্ছদের চেষ্টা চালায় । এলাকায় বিচারের দাবী জানিয়ে সঠিক বিচার না পেয়ে আদালতের দারস্থ হই। কিন্তু তারা অর্থ ও জনবলে বলিয়ান হয়ে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে আমার বসত ঘরের তিন পাশে বেড়া ও ঘর নির্মান করে। বর্তমানে আমি ছেলে মেয়ে খুব কষ্টে ও ভয়ে দিন যাপন করছি।
সফিক মিয়া জানান, মন্টু মিয়া বাড়ির বাহিরে ছিল, আমরা তাকে বাড়িতে জায়গা সম্পত্তি দিয়ে আশ্রয় দিয়েছি। মন্টু মিয়ার ব্যবহার ভাল না, তাই তাকে আমাদের সম্পত্তি ফিরে দিতে হবে।

No comments:

Post a Comment

[X]
অফিস ॥ ৯২ আরামবাগ, ক্লাব মার্কেট, মতিঝিল। ই-মেইল ॥ banglaonlinetv24@gmail.com
প্রকাশক মোঃ রাসেল জাতীয় মানবাধিকার ইউনিটি রেজিঃ নং: ঢ_০৮৮৩৭
অনলাইন নিতীমালা মেনে আবেদন কৃত সম্পাদক॥ রাজু আহমেদ অনুমোদিত নাম্বার ০৫/৯৩১৭০২৬৫