অ্যাপসটি সবাই কেন ব্যবহার করতে চায়। কারণ হচ্ছে এতে রয়েছে সকল ধরনের সবিতা। জিটিভি লাইভ খেলা, রেডিও ,টিভি, নিউজ পেপার ,পুলিশের নাম্বার ,লাইভ ক্রিকেট খেলার ,cricket scores ,football scores , অডিও কোরআন শরীফ শুনতে ও পড়তে পারবেন , আরো রয়েছে আপনার সন্তানের পরীক্ষার রেজাল্ট বাহির করতে পারবেন ,ইত্যাদি সকল বিষয়। এবং আরো রয়েছে অনেক ধরনের সুবিধা যেমন আপনি যেখানে ১২ থেকে ১৫ টা সফটওয়্যার ইনস্টল করতে হবে । সেখানে আপনি মাত্র চার এমবি একটা সফটওয়্যার ইন্সটল করে সব কাজ করতে পারেন। কোন জামেলা ছাড়াই । এবং ফ্রিতে ইন্সটল করতে পারেন কোন play store সমস্যা পড়তে হবে না । ডাউনলোড লিংক দেওয়া হল ভালো লাগলে ডাউনলোড করে ব্যবহার করবেন ধন্যবাদ সবাইকে

পোষ্টটি সম্ভব হলে শেয়ার কপি করুন ।

পোষ্টটি সম্ভব হলে শেয়ার কপি করুন ।

ইসলামের দ্বিতীয় খলীফা উমর (রাঃ) এর সময়ের একটি হৃদয়বিদারক ঘটনা এবং আজকের দুপুরের এন টিভির নিউজে দেখা সুনামগঞ্জের হাওরের অসহায় এক মায়ের হৃদয়বিদারক ছলচাতুরী !
--------------------------------------------------------------------------------  

খলীফা হযরত উমর (রাঃ) তাঁর অধীনস্থ লোকদের মঙ্গলচিন্তায় এতটা উদ্বিগ্ন থাকতেন যে, তিনি রাতে ছদ্মবেশে মদীনা শহরে বেরিয়ে পড়তেন, নিজ চোখে এটা দেখার জন্য যে কার কোন সাহায্যের প্রয়োজন কিনা। একদা, রাতে প্রদক্ষিণের সময়, তিনি লক্ষ্য করলেন এক মহিলা একটি পাত্রে কিছু পাকাচ্ছিলেন যখন তার বাচ্চারা তার পাশে দাঁড়িয়ে কাঁদ ছিল। তিনি মহিলা থেকে জানতে পারলেন যে, বাচ্চারা দু’দিন যাবত ক্ষুধার্ত র‌য়েছে এবং পাত্র আগুনের উপর রাখা হয়েছে কেবল তাদের সান্ত্বনা দেয়ার জন্য ! তিনি তৎক্ষণাৎ রাষ্ট্রীয় খাঞ্চাজিখানা/ ধনাগারে চলে যান এবং নিজে স্বয়ং তাদের জন্য প্রয়োজনীয় খাদ্যদ্রব্য বহন করে নিয়ে আসেন । পথিমধ্যে, তাঁর একজন ভৃত্য তাঁর নিকট থেকে সেই বোঝা নিতে চাইলে তিনি তাকে বাধা দিয়ে বলেনঃ “বিচারের দিনে তো তুমি আমার বোঝা বহন করতে পারবে না ।

মহিলাটি, যে পূর্বে হযরত উমর (রাঃ) কে দেখেনি, এতই সন্তুষ্ট হলেন যে, তিনি উচ্চস্বরে এই বলে তাঁর জন্য দোয়া করেন, “আল্লাহতা’লা উমরের পরিবর্তে আপনাকে খলিফা বানান”। এই কথা শুনে হযরত উমর (রাঃ) কাদঁতে শুরু করেন এবং কিছু না বলে সে স্থান ত্যাগ করেন।

আজ দুপুরে সেইম উমর (রাঃ) এর সেই ঘটনার চিত্র আমার চোখের সামনে ভাসে ! দেখলাম এক অসহায় মা চুলার উপর একটি পাতিল বসিয়ে আগুন দিয়ে শুধু পানিই জাল দিচ্ছেন ! এন টিভির সাংবাদিক পাতিলের ঢাকনা সরাতে বললে, অসহায় মা ফেল ফেল করে থাকিয়ে সরালেন ! আমি টিভি স্কিনে দেখে চোখের পানি সামলাতে পারিনি ! সত্যিই এখন যখন লিখছি আমি অশ্রুসিক্ত আঁখি নিয়েই লিখছি ! 😤

অসহায় মা, সাংবাদিকের কথায় ঢাকনা সরালে, আমার নিজ চোখে দেখতে পাই ডেগে পানি ছাড়া কিছুই নেই ! সেই দৃশ্য দুপুর থেকে এখনো চোখ থেকে সরাতে পারছিনা ! দুপুর বেলা একটু বিশ্রাম করি, চাইছিলাম একটু শুইয়ে পড়বো । কিন্তু এসব চিত্র দেখে নিজেকে ঠিক রাখতে পারছিনা । স্মরণ হচ্ছে বার বার হযরত উমর (রাঃ) এর সেই রাত্রের ঘটনা ! নিজ কাঁদে রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে ত্রাণ নিয়ে গমনের দৃশ্য ! বার বার মনে হচ্ছে আবার এই ধরায় কি কোন উমরের আগমন হবে ? যিনি নিজে কাঁদে করে সুনামগঞ্জের সেই অসহায় মায়ের পাতিলে খাদ্য সরবরাহ করবেন ! এমন কোন উমরের আবির্ভাব হবে কি যিনি সেই অসহায় মায়ের দোয়া নিবেন !

নাতিনের ভাতের জোগাড় করতে না পারার ব্যথায় বৃদ্ধ দাদার মৃত্যু ! অসহায় পুত্রবধূর আহাজারি ! আহ ! কি হৃদয়বিদারক চিত্র ! মাওলা রহম করো ।

সুনামগঞ্জে হযরত উমরের (রাঃ) উত্তরসূরি ওয়ারাসাতুল আম্বিয়ার ধারক  বাহক, জমিয়তের বেশ কয়েকজন জনপ্রতিনিধি আছেন ।  মুহতারাম Shahinoor Pasha Chowdhury, Taybur Rahman Chowdhury, মু.রশীদ আহমদ ভাইস চেয়ারম্যান সহ ইউরোপ আমেরিকা, মধ্যেপ্রাচ্য সহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের প্রবাসী অনেক মহৎ ব্যক্তিরা । জানিনা এসব রিপোর্ট আপনাদের চোখে ভাসছে কি ?

বর্তমান অবৈধ সরকারের মিডিয়ায় এসব চিত্র প্রদর্শন সম্পূর্ণভাবে নিষিদ্ধ ! তদুপরি এন টিভির আজকের এই সাহসী রিপোর্টে, অসহায় সুনামগঞ্জ বাসীর কিছুটা চিত্র আঁচ করতে কারো বেগ পাবার কথা নয় । না জানি সরজমিনে হাওর বাসীর আসল চিত্র কত যে ভয়াবহ ।

আশাকরি অন্তত আলিম উলামা জনপ্রতিনিধিগণ অসহায় জনগণের পাশে থেকে সাহস যোগাবেন । বিশেষত মুহতারাম পাশা ভাইয়ের প্রচেষ্টা শুরু থেকেই দেখছি । সরকারী ত্রাণ আসছে এগুলো যাতে সুষ্ঠু বিতরণ হয় আপনাদের নজরদারি, সাহসী অগ্রণী ভূমিকা কাম্য । এছাড়া দেশ বিদেশের বিত্তশালীদের সুনজর কামনা করছি । মুহতারাম পাশাভাই ত্রাণ তহবিলের কোন ফান্ড করে ত্রাণ জমার ঠিকানা দিলে আশাকরি সকলেই সাধ্যমত এগিয়ে আসবেন । ইনশাআল্লাহ আমি নিজেও সাধ্যমত শরীক থেকে ত্রাণ সংগ্রহে সহায়তা করবো ।

আল্লাহ এই অসহায় হাওর বাসীর সহায় হোক । আমীন ।

No comments:

Post a Comment

[X]
অফিস ॥ ৯২ আরামবাগ, ক্লাব মার্কেট, মতিঝিল। ই-মেইল ॥ banglaonlinetv24@gmail.com
প্রকাশক মোঃ রাসেল জাতীয় মানবাধিকার ইউনিটি রেজিঃ নং: ঢ_০৮৮৩৭
অনলাইন নিতীমালা মেনে আবেদন কৃত সম্পাদক॥ রাজু আহমেদ অনুমোদিত নাম্বার ০৫/৯৩১৭০২৬৫