[X]

প্লিজ এই লেখাটি সকল ফেসবুক ব্যবহারকারী পড়বেন


(লেখাটা পড়ে বিন্দুমাত্র উপকার হলে অবশ্যই শেয়ার করবেন ) এক সময় বিল গেটস একটি ব্যাংক থেকে কিছু লোন চেয়েছিলেন।কিন্তু ব্যাংক তাঁকে লোন দেয়নি। সেই ছেলেটি একদিন সেই ব্যাংকটিই কিনে নিয়েছিলেন। ছেঁড়া শার্টের কারণে এন্ড্রু কার্নেগিকে পার্কে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। সেই বস্তির ছেলে একদিন অন্যতম ধনী ব্যক্তি হওয়ার পর পুরো পার্কটি ক্রয় করেন এবং সেখানে সাইনবোর্ড লাগিয়ে দিয়েছিলেন, 'আজ থেকে পার্ক সবার জন্য উন্মুক্ত'।) আজ গলা ধাক্কা খেয়েছেন? কোন ব্যাপার না। একদিন সেই গলায় ফুল দেওয়ার জন্য সেই লোকগুলোই লাইন ধরে দাঁড়িয়ে থাকবে। আজ কেউ আপনাকে ঠকিয়েছে? কোন ব্যাপার না। একদিন সে-ই আপসোস করে বলবে, আপনাকে ঠকিয়ে সে উল্টো নিজেরই সর্বনাশ করেছে। আজ আপনাকে দেখে "ক্ষ্যাত" বলে কেউ দূরে সরে যাচ্ছে? ব্যাপার না। একদিন আপনাকে একটু ছুঁয়ে দেখার জন্য সে-ই আপনার কাছে আসবে। আজ গরিব বলে কেউ আপনাকে অবজ্ঞা করছে? ব্যাপার না। এসব পিছুগল্পের দিকে তাকিয়ে থাকলে আপনি চিরকাল অপমান, লাথি, গুঁতা, বাঁশ, ক্রাশ ইত্যাদি খেয়েই যাবেন। কে কী করছে, কী ভাবছে-সেসব বাদ দিয়ে নিজের লক্ষ্যে এগিয়ে গেলেই কেবল একদিন আপনি উদাহরণ কিংবা দৃষ্টান্ত হতে পারবেন। জীবনে ছোট খাট বিষয় নিয়ে পড়ে থাকার কোন মানে হয়না। জীবনে বেঁচে থাকার জন্য অনেক কিছু করতে হয়, মেনে নিতে হয়। সময় যখন পক্ষে থাকে না তখন অনেক কিছু সহ্য করেও মুখ বুজে কাজ করে যেতে হয়। একটু বেঁচে থাকার জন্য জগতের অনেক বিখ্যাত ব্যক্তিরা যুগে যুগে নজরুলের মতো চায়ের দোকানে কাজ করে জীবন বাঁচিয়েছেন। ব্রেইনে শুধু একটি কথা গেঁথে রাখুনঃ "সময় এখন অাপনার পক্ষে না। একদিন সময় আপনার হবে।।"

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

অফিস ॥ ৯২ আরামবাগ, ক্লাব মার্কেট, মতিঝিল। ই-মেইল ॥ banglaonlinetv24@gmail.com
প্রকাশক মোঃ রাসেল জাতীয় মানবাধিকার ইউনিটি রেজিঃ নং: ঢ_০৮৮৩৭
অনলাইন নিতীমালা মেনে আবেদন কৃত সম্পাদক॥ রাজু আহমেদ অনুমোদিত নাম্বার ০৫/৯৩১৭০২৬৫