[X]
loading...

বেনাপোলে পল্লী টিভির সাংবাদিক পরিচয়ে চাঁদাবাজির অভিযোগে আটক-৪

শেখ কাজিম উদ্দিন : বেনাপোলের মডার্ণ ডায়াগনষ্টিক সেন্টারে পল্লী টিভির ক্রাইম রিপোর্টার সেজে চাঁদাবাজির সময়ে চারজনকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে দিয়েছে জনতা। বুধবার (১৯ জুন) রাতে বেনাপোল বাজারে অবস্থিত এ ডায়াগনষ্টিক সেন্টারের ভিডিও ফুটেজ নেওয়া শেষে কাগজপত্রাদি দেখার প্রাক্কালে চাঁদার কথা বললে তা উৎসুক জনতার ভিড়ে  প্রচারিত হলে তাদেরকে গণধোলাই দিয়ে থানায় দেওয়া হয়। পরে মডার্ণ ডায়াগনষ্ঠিক সেন্টারের পরিচালক ইব্রাহিম শেখ রুবেল বাদি হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন।

ঘটনাটি জানতে পেরে রজনী ক্লিনিকের ম্যানেজার আরাফাত ইসলাম থানায় এসে পুলিশের কাছে অভিযোগ করে বলেন, চক্রটি কিছুক্ষণ পূর্বে তার কাছ থেকেও ১লক্ষ টাকার চাঁদার দাবিতে নগদ ২হাজার টাকা নিয়ে এসেছে। বাকি টাকা বেনাপোল থেকে ফিরে নিয়ে যাবে। দিতে না পারলে সিভিল সার্জন দিয়ে ক্লিনিকটি সিলগালা করে দেবে।    

এ বিষয়ে নাভারনের বুরুজবাগান জেনারেল হাসাপাতালের পরিচালক ইয়ানুর রহমান বলেন, চক্রটি তার ক্লিনিক থেকেও ২০ হাজার টাকা নিয়ে এসেছে।

চক্রটির আটকের ছবি সামজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে বিভিন্ন মানুষের কমেন্টস থেকে জানাযায়, উক্ত চক্রটি যশোর ও সাতক্ষীরার কয়েকটি ক্লিনিক থেকে চাঁদাবাজি করে এসেছে।

আটককৃতরা হলো- চুয়াডাঙ্গার জীবননগরের আশতালাপাড়া গ্রামের সৌরভ হোসেনের ছেলে শাহাজাত বেল্লাল (২৯), একই এলাকার আব্দুল জব্বারের ছেলে সবুজ হোসেন (২০), তারানিবাশ পশ্চিম পাড়া এলাকার করিমের ছেলে আলামিন বিশ্বাস (২৬) ও দৌলতগঞ্জ এলাকার মিজানুর রহমানের ছেলে শীতল হোসেন (২০)।

এ বিষয়ে বেনাপোল পোর্ট থানার এসআই আব্দুল লতিফ জানান, এলাকার বিভিন্ন ক্লিনিকে চাঁদাবাজির অভিযোগে স্থানীয় জনতা তাদেরকে আটক করে পুলিশে সংবাদ দিলে বেনাপোল বাজারের একটি ডায়াগনষ্ঠিক সেন্টার থেকে তাদের থানায় নিয়ে আসা হয়। মামলা শেষে বৃহস্পতিবার দুপুরে তাদেরকে যশোর আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

অফিস ॥ ৯২ আরামবাগ, ক্লাব মার্কেট, মতিঝিল। ই-মেইল ॥ banglaonlinetvnews@gmail.com
প্রকাশক মোঃ রাসেল জাতীয় মানবাধিকার ইউনিটি রেজিঃ নং: ঢ_০৮৮৩৭
অনলাইন নিতীমালা মেনে আবেদন কৃত সম্পাদক॥ রাজু আহমেদ অনুমোদিত নাম্বার ০৫/৯৩১৭০২৬৫