[X]
loading...

বেনাপোল সীমান্তের পাঁচভুলোট এলাকায় চোরাকারবারিদের বোমা হামলায় আহত হাবিলদার মারাগেছেন

শেখ কাজিম উদ্দিন : বেনাপোল সীমান্তের পাঁচ ভুলোট এলাকায়  চোরাকারবারীদের বোমা হামলায় আহত হাবিলদার আকমল হোসেন (৫২) মারা গেছেন (ইন্না নিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন)। সোমবার সকাল ৯টা ২৫ মিনিটের সময় তিনি ঢাকার সিএমএইচএ চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিশ^াষ ত্যাগ করেন। যার ব্যাচ নম্বর-৫০০৩২। তিনি রংপুর জেলার মিঠাপুকুর থানার বালার হাট এলাকার খোর্দ্দকোমরপুর গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে।


এদিকে প্রিয় সহকর্মীর মৃতুত্যে ২১ ও ৪৯ ব্যাটালিয়নের সকল বিজিবি সদস্যসহ মরহুমের পরিবারের মাঝে শোকের ছায়া বিরাজ করছে। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, তিন কন্যা ও এক পুত্র সন্তান রেখে গিয়েছেন।


এ বিষয়ে ২১ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্ণেল ইমরান উল্লাহ সরকার জানান, হাবিলদার আকমল হোসেন গত ২৬ জুলাই রাত আনুমানিক ২ টার সময় পাঁচভুলোট বিওপির একটি নিয়মিত টহল দলের অধিনায়ক হিসেবে সীমান্তের ১৭/৭ এস এর ৯৮ আর পিলারের সন্নিকটে চোরাচালান প্রতিরোধী টহলে নিয়োজিত ছিলেন। ঐ সময়ে দু’টি ভারী ব্যাগ হাতে দু’জন ব্যক্তি এবং আরো কয়েকজন ব্যক্তি টহল দলের দিকে আগুয়ান হতে থাকলে সন্দেহবশতঃ টহল কমান্ডার হাবিলদার আকমল হোসেন তাদেরকে থামার সংকেত দেন। কিন্তু আগুয়ান প্রথম ব্যক্তি না থেমে আকস্মাৎ তার হাতে থাকা ব্যাগটি সজোরে হাবিলদার আকমলের দিকে নিক্ষেপ করে দৌঁড়ে পলায়নকালে ব্যাগে রক্ষিত হাতবোমা বিকট শব্দে বিস্ফোরিত হয়। এসময় বোমার আঘাতে হাবিলদার আকমলের সমগ্র শরীর ক্ষত-বিক্ষত হয়। একটি স্পিøন্টার তার বাঁ চোখের কর্ণিয়া ক্ষতিগ্রস্থ করে মস্তিস্কে ঢুকে যায়। আশঙ্কাজনকভাবে তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান শেষে দ্রুত যশোর সিএমএইচ-এ প্রেরণ করা হয়।


অবস্থা বেগতিক হওয়ায় গত ২৭ জুলাই সকালে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে বিশেষ ব্যবস্থায় হেলিকপ্টারযোগে ঢাকা সিএমএইচ-এ প্রেরণ করা হয়। সেখানে তিনি মৃত্যুর আগ পর্যন্ত নিবিড় পর্যবেক্ষণে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

অফিস ॥ ৯২ আরামবাগ, ক্লাব মার্কেট, মতিঝিল। ই-মেইল ॥ banglaonlinetvnews@gmail.com
প্রকাশক মোঃ রাসেল জাতীয় মানবাধিকার ইউনিটি রেজিঃ নং: ঢ_০৮৮৩৭
অনলাইন নিতীমালা মেনে আবেদন কৃত সম্পাদক॥ রাজু আহমেদ অনুমোদিত নাম্বার ০৫/৯৩১৭০২৬৫