ভারতে কারাভোগ শেষে বেনাপোল দিয়ে স্বদেশে ১৯

শেখ কাজিম উদ্দিন : দীর্ঘ দুই বছর ভারতের জেলখানায় জেলখেটে ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে স্বদেশে ফিরেছে ১৯ যুবক। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তাদেরকে ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে।
 
ফেরত আসা যুবকরা জানান, তারা অভাব অনটনের সংসারকে সচল করতে মানব পাঁচারকারিদের প্রলোভনে পড়ে ভালো কাজের আশায় অবৈধ পন্থায় ভারতে প্রবেশ করেছিল। সেখানে তামিলনাড়– প্রদেশের ক্রিকুট শহরের আন্থনী গার্মেন্টসে চাকুরি করত। পরে অবৈধ অনুপ্রবেশের অভিযোগে ভারতের পুলিশ তাদেরকে আটক করে আদালতের মাধ্যেমে চেন্নাই সেন্ট্রাল জেল খানায় রাখে। অবশেষে দু’দেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে দেওয়া বিশেষ ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যেমে স্বদেশে ফেরত আসে।

ফেরত আসা যুবকরা হলো, শেরপুর জেলার রিয়াজ উদ্দিনের ছেলে আলমগীর হোসেন, জয়নাল আবেদিনের ছেলে বিজয় মিয়া, হাসেম আলীর ছেলে মুক্তার মিয়া, চাঁন মন্ডলের ছেলে জাহিদুল ইসলাম, চানমিয়ার ছেলে সুমন মিয়া, শাহিন মিয়ার ছেলে আবুল কালাম, জলীলের ছেলে আশিক মিয়া, আফিল উদ্দিনের ছেলে ছমির মিয়া, রেজাউদ্দিনের ছেলে লালমিয়া, আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে মঞ্জুরুল হক, লালমনিরহাট জেলার আমিনুর রহমানের ছেলে আরিফুল ইসলাম, কিশোরগঞ্জ জেলার শাহজাহান খানের ছেলে সজিব হোসেন, সহোদর দোলন হোসেন, গাজীপুর জেলার মেরাজ আলীর ছেলে কবির হোসেন, শাহেদ আলীর ছেলে হাবিবুর রহমান, সৈয়দপুর জেলার সরাফাত হোসেনের ছেলে খালিদ বিন খোকন, মাদারিপুর জেলার খালেক মিয়ার ছেলে জাহাঙ্গীর হোসেন, দিনাজপুর জেলার জয়নাল আবেদিনের ছেলে রফিকুল ইসলাম, নরসিংদীর বিল্লাল হোসেনের ছেলে নজরুল ইসলাম। এদের বয়স ১৮ থেকে ৩৬ বছরের মধ্যে।
 
বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের অফিসার ইনচার্য (ওসি) মহসিন খান পাঠান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ভারত থেকে স্বদেশে ফেরত আসাদের বেনাপোল পোর্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

এ বিষয়ে বেনাপোল পোর্ট থানার অফিসার ইনচার্য (ওসি) মামুন খান বলেন, থানার আনুষ্টানিকতার কাজ শেষে তাদেরকে তাদের নিজ আতœীয়-স্বজনদের কাছে তুলে দেওয়া হবে।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

[X]
loading...
অফিস ॥ ৯২ আরামবাগ, ক্লাব মার্কেট, মতিঝিল। ই-মেইল ॥ banglaonlinetvnews@gmail.com
প্রকাশক মোঃ রাসেল জাতীয় মানবাধিকার ইউনিটি রেজিঃ নং: ঢ_০৮৮৩৭
অনলাইন নিতীমালা মেনে আবেদন কৃত সম্পাদক॥ রাজু আহমেদ অনুমোদিত নাম্বার ০৫/৯৩১৭০২৬৫