[X]
loading...

বাংলাদেশের “দ্রুত এগিয়ে যাওয়া” প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বের কারণেই সম্ভব হচ্ছে :: কাস্টমস দিবসে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ

শেখ কাজিম উদ্দিন : ভারত, বাংলাদেশের অপ্রীতিম বন্ধু রাষ্ট্র। যাদের সাথে আমাদের চমৎকার সম্পর্ক বিদ্যমান। তাদের সাথে কাঁধে কাঁধ রেখে আমরা একই সাথে উন্নয়নের উন্নত শিখরের দিকে এগিয়ে যাচ্ছি। বাংলাদেশের “দ্রুত এগিয়ে যাওয়া” প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বের কারণেই সম্ভব হচ্ছে। রবিবার (২৬ জানুয়ারি) বেনাপোল কাস্টমস হাউসে আর্ন্তজাতিক কাস্টমস দিবস-২০২০ উদযাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে একথা বলেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন এমপি।

বেনাপোল কাস্টমস হাউসের কমিশনার মোহাম্মদ বেলাল হোসাইন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কাস্টমস দিবসের আলোচনা সভায় তিনি আরো বলেন, বিশ্বের ১৮২টি দেশে আর্ন্তজাতিক কাস্টমস দিবস পালিত হচ্ছে। আমরা ওয়ার্ল্ড কাস্টমসের সাথে তাল মিলিয়ে সবার চাইতে ভালো করতে চায়। এজন্য আমাদেরকে আরো বেশি প্রযুক্তি ব্যবহার করে এগিয়ে যেতে হবে। যার সার্বিক মান উন্নতিকরণের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বদ্ধ পরিকর। তিনি বাংলাদেশকে আরো দ্রুত এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য প্রশাসনের দক্ষ জনবলের উন্নত চিন্তাভাবনার আলোকে প্রয়োজনীয় প্রযুক্তি দিতে প্রস্তুত আছেন।

এসময় তিনি আরো বলেন, আমরা “স্বাধীন বাংলাদেশের মহান স্থাপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর স্বপ্নের বাংলাদেশ”কে উন্নয়নের উন্নত শিখরে নিতে চায়। এজন্য সরকারের দক্ষ জনবলকে ব্যবসায়ীদের জন্য আরো বেশি ব্যবসা বান্ধব পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে। আধুনিক সেবার মাধ্যমে দেশের রাজস্ব খাতকে এগিয়ে নিতে হবে। আমাদেরকে স্বাধীনতার চেতনা ও দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে দেশের অর্থনীতিকে এগিয়ে নিতে হবে। আমরা স্বাধীনতার চেতনা আর দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে উন্নত দেশের বাসিন্দা হতে পারলে জাতির জনকের স্বপ্ন স্বার্থক হবে।

অনুষ্ঠানের শুরুতে বেনাপোল কাস্টমস হাউস অভ্যন্তর থেকে বর্ণাঢ্য র‌্যালী বের হয়ে বেনাপোল-কোলকাতা মেইন সড়ক ধরে চেকপোস্ট এলাকা প্রদক্ষিণ শেষে পূণরায় কাস্টমস মিলনায়তনে এসে শেষ হয়। পরে শান্তির পায়রা ও বেলুন উড়িয়ে দিবসের উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের প্রথম পর্বের প্রধান অতিথি স্থানীয় সাংসদ আলহাজ্ব শেখ আফিল উদ্দিন।

বেনাপোল কাস্টমস হাউসের সহকারি কমিশনার কাজী মুর্শিদা’র উপস্থাপনায় অনুষ্ঠিত কাস্টমস দিবসের আলোচনা সভায় মুখ্য আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ার হোসেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সদস্য (কর আপীল ও অব্যহতি) মেফতাহ উদ্দিন, যশোর কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনার মোহাম্মদ জাকির হোসেন, যশোর জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শফিউল আরিফ, পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আশরাফ হোসেন।

আলোচনা সভায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বেনাপোল কাস্টমস হাউসের অতিরিক্ত কমিশনার ড. মোঃ নেয়ামুল ইসলাম ও যুগ্ম কমিশনার মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম।

এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শার্শা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল হক মঞ্জু, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পূলক কুমার মন্ডল, সার্কের এএসপি জুয়েল ইমরান, যশোর ৪৯ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল সেলিম রেজা, বেনাপোল পোর্ট থানার অফিসার ইনচার্য (ওসি) মামুন খান, বেনাপোল সিএন্ডএফ এজেন্টস এসোসিয়েশনের সভাপতি মফিজুর রহমান সজন। সিনিয়র সহ সভাপতি আলহাজ্ব নুরুজ্জামান, সাবেক সভাপতি আলহাজ্ব সামছুর রহমান, নাভারন কলেজের অধ্যক্ষ ও জেলা পরিষদের সদস্য অধ্যক্ষ ইব্রাহিম খলিল, সিএন্ডএফ এজেন্টস এসোসিয়েশনের কাস্টমস বিষয়ক সম্পাদক আলহাজ্ব নাসির উদ্দিন, কোষাধ্যক্ষ আলহাজ্ব এনামুল হক মুকুল, জেলা পরিষদের সদস্য অহিদুজ্জামান অহিদ, বেনাপোল ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব বজলুর রহমান, শার্শা সদর ইউপি চেয়ারম্যান সোহরাব হোসেন, পুটখালী ইউপি চেয়ারম্যান হাদিউজ্জামান, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুর রহিম সরদার প্রমুখ।

এসময় ভারতের পেট্রাপোল কাস্টমস ও বেনাপোল কাস্টমস হাউসের কর্মকর্তা-কর্মচারিসহ স্থানীয় বিভিন্ন ব্যবসায়ীক, রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

বর্ণাঢ্য আয়োজনে দিনব্যাপী অণুষ্ঠানমালা শেষে বর্ণিল আয়োজনে সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা অনুষ্ঠিত হয়।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

অফিস ॥ ৯২ আরামবাগ, ক্লাব মার্কেট, মতিঝিল। ই-মেইল ॥ banglaonlinetvnews@gmail.com
প্রকাশক মোঃ রাসেল জাতীয় মানবাধিকার ইউনিটি রেজিঃ নং: ঢ_০৮৮৩৭
অনলাইন নিতীমালা মেনে আবেদন কৃত সম্পাদক॥ রাজু আহমেদ অনুমোদিত নাম্বার ০৫/৯৩১৭০২৬৫